আমরা সাধারণত TIkTok কে ঘৃণা করার ১০ টি রিজন  আছে , আর সেগুলা আমি আপনাদের কে এক এক করে বলব।  তো চলুন শুরু করা যাক।  

১. অন্যের গানের সাথে মুখ মিলিয়ে গান গাওয়া। 
  • আর আমাদের ইসলামের  দৃষ্টিতে একদম হারাম।  কারণ যে গানের মাঝে বাদ্র্য যন্ত্র আছে সেগুলো তো এমনিতেই হারাম 
২. ভুতলামী নাচ দেওয়া। 

৩. যুবসমাজ নষ্ট হয়া। 

৪. ইভটিজিং এর সমালোচনা। 

৫. পড়া শুনা বাদ  দিয়ে টিকটিক  ব্যাস্ত হওয়া। 

৬. বেকার হওয়ার আশংকা। .

৭. লক্ষ্য ভ্রষ্ট হওয়া। 

৮. কাউকে পরোয়া না করে দুমদাম চলা ফেরা করা। 

৯. আড্ডা বাজিতে সময় নষ্ট করে ফেলা। 

আর 
১০. হল  জীবনের  মান না বুঝে চলা ফেরা করা। 

১১.

১২.

১৩.

১৪.

১৫.......................................................................................

এই সব কিছু আমার নিজের দৃষ্টি থেকে বলছি।  কারণ আমি এই রকম  প্রব্লেম ফেইস করে আজ আমি ঠিকই ব্লগ লিখছি।  
আর তাই আপনাদের সতর্ক  করার জন্যই আমার আজ মনোভাব প্রকাশ করা। 


সাধারণত এই জন্যই জন সাধারণ এটা কে ঘৃণা করে থাকে। 

English:

We usually have 10 regions to hate TIkTok, and I will tell you one by one.  So let's get started.


 ১.  Singing face to face with the music of others.

 And in our view of Islam is absolutely forbidden.  Because the songs that contain the evil instruments are forbidden

 2.  The ghostly dance offered.


 ৩.  The youth is not wasted.


 ৪.  Criticism of Evtzing.


 ৫.  Excluding reading and ticking.


 ৬.  Fear of being unemployed.  General Chat Chat Lounge


 ৭.  The goal is to be corrupt.


 ৮.  To walk around without looking at anyone.


 ৯.  Wasting time on chatting.


 Else

 ১০.  It is the return to the life without understanding the quality of life.



 I say these things from my own perspective.  Because I'm face to face like this, I'm writing a blog today.

 And so to warn you, I must express my attitude today.



 This is usually why the public hates it.

Post a Comment

Previous Post Next Post